ঠোঁট কি কালো? আপনার জন্য কিছু টিপস

কালো ঠোঁট মুখের সৌন্দর্য অনেকটাই হানী করে দেয়। পুরুষ বা মহিলা যে কেউ এ সমস্যায় পড়তে পারেন। তাই এর জন্য কিছু সমাধান সবার জেনে রাখা ভালো। প্রথম থেকেই যদি এই সমস্যার সমাধান করা যায়, তাহলে পুনরায় সেটা হওয়ার সম্ভাবনা কমে যায়। খুব সাধারণ কিছু নিয়ম মেনে চললেই আপনি আপনার লক্ষ্যে পৌছুতে পারবেনঃ

* প্রথমত, আপনার যদি ধূমপানের অভ্যাস থাকে, তবে তা এখনই ছাড়তে হবে। এর কোন বিকল্প নেই।

* দিনে দু’বারের বেশি চা বা কফি পান থেকে বিরত থাকুন।

*অ্যালকোহল এড়িয়ে চলুন

*লেবুর রসের সঙ্গে মধু মিশিয়ে ঠোঁটে লাগাতে পারেন। এতে ঠোঁটের কালোভাব দূর হবে।

*মুলতানি মাটি, কয়েক ফোঁটা মধু ও কাঁচা দুধ মিশিয়ে ঠোঁটে লাগালে ঠোঁটের কালচে ভাব দূর হবে।

*ঠোঁটের কোনা অনেক সময় কালো হয়ে যায়, শসা ও পাতিলেবুর রস একসঙ্গে মিশিয়ে দিনে ৩-৪ বার ঠোঁটে লাগালে উপকার পাবেন।

* প্রতিদিন গ্লিসারিন, অলিভ অয়েল, মধু ও গোলাপজল একসঙ্গে মিশিয়ে লাগালে ঠোঁটের উজ্জ্বলতা ফিরে আসবে।

* রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে নারিকেলের তেলের সঙ্গে বাদাম তেল মিশিয়ে ঠোঁটে লাগান। সপ্তাহে দু’দিন এই প্যাকটি ব্যবহার করুন। কালো দাগ দূর হবে।

* দিনে কমপক্ষে আট গ্লাস পানি খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলুন।

* ঠোঁটে লিপিস্টিক বা অন্য কিছু ব্যবহারের আগে সেটার মান সম্পর্কে নিশ্চিত হয়ে নিন।

জন্মগতভাবেই ঠোঁটের রং কালো হতে পারে, আবার কখনো কখনো হরমোনের প্রভাবেও ঠোঁট ও মাড়ির রং কালো হয়ে যায়। আবার রঙিন টুথপেস্ট, কমলার খোসার রস কিংবা আমের কষ লেগেও ঠোঁট কালো হতে পারে। এসব কারণে যদি ঠোঁট কালো হয়ে থাকে, তবে এগুলো এড়িয়ে চলুন। দাঁত মাজার সময় ব্যবহার করুন সাদা রঙের পেস্ট। আর হরমোনজনিত কারণে হলে পরীক্ষা করে দেখতে হবে আগে। তারপর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাপত্র। তাই একজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের শরণাপন্ন হোন।

এই পোস্টটি শেয়ার করুন