বাণিজ্যিক ভিত্তিতে পাখি পালন

পাখি পালন টিপস

বাজরিগার ও ফিঞ্চ পাখির ছবি- ই টিপস।

বাণিজ্যিকভাবে বিভিন্ন প্রজাতির বিদেশী পশু-পাখি পালন করে আয় করতে পারেন। চাকুরি বা পড়াশোনার পাশাপাশি পাখি পালন করা সম্ভব। বাড়তি আয় ছাড়াও এই শখ পূরণ করতে গিয়ে অবসর সময়টাও ভালোভাবে কাটানো যায়। শখের বসে এসব পাখি পালন করতে করতে বাণিজ্যিকভাবে পালন করে বেশ স্বাবলম্বী হয়েছেন অনেকেই। বাণিজ্যিক ভিত্তিতে পাখি পালনে নিন্মোক্ত পাখি নির্বাচন করতে পারেন-

১। বাজরিগার

২। লাভ বার্ড

৩। বিদেশী ঘুগু

৪। ককাটেল

৫। কলিন পাখি

৬। জেব্রা ফিন্চ

৭। বিভিন্ন জাতের কবুতর

৮। চীনা হাঁস, চীনা মুরগি, রাজহাঁস

৯। কোয়েল পাখি

এখান থেকে কয়েকটি পাখি একসাথেও পালন করে লাভবান হতে পারেন এবং এটাই অনেক ভালো। আপনার যায়গার পরিমান বেশি থাকলে সবগুলো একসাথে পালন করে অধিক পরিমান আয় করতে পারেন। শৌখিন পালনের জন্য প্রশিক্ষণের প্রয়োজন নেই। শখের জন্য পালতে চাইলে পাখির দোকানে গেলেই হবে। তবে বাণিজ্যিক ভিত্তিতে পাখির খামার করতে চাইলে প্রশিক্ষনের প্রয়োজন হবে। সারাদেশেই এসব পাখি পালন হয়। সারাদেশেই এসব পাখি ক্রয়-বিক্রয় করা যায়। রাজধানীতে কাঁটাবন, মোহাম্মদপুর, মিরপুর, গুলিস্থানসহ বিভিন্ন হাটে এই পাখি পাওয়া যায়। এছাড়া সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুক ও অনলাইন ক্রয়-বিক্রয় ওয়েবসাইটেও বাজরিগার পাওয়া যাবে।

  • পাখিদের খেলার জিনিস মনে করবেন না, ওদের জীবন আছে। পূর্ণ যত্ন নিতে হবে। তাদের ভালোলাগা সব কিছুই আপনার উপর নির্ভর করে।
  • আর একটু পরিশ্রম করলে অন্যান্য পেশার পাশাপাশি যদি কিছু টাকা ইনকাম করা যায় ক্ষতি কি?

বিঃ দ্রঃ সরকারি সিদ্ধান্ত মোতাবেক শৌখিন বা বাণিজ্যিক ভিত্তিতে পাখি পালনে অবশ্যই সরকারি লাইসেন্স প্রয়োজন। লাইসেন্স এর জন্য সরকারের দায়িত্ব প্রাপ্ত দপ্তরে যোগাযোগ করুণ।

এই পোস্টটি শেয়ার করুন