A.M.I.E

এএমআইই সম্পর্কে সাধারণ তথ্য

এএমআইই (Associate Membership of the Institution of Engineers) হলো ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি) পরিচালিত একটি পরীক্ষার নাম, যে পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে, আইইবি-র এসোসিয়েট মেম্বারশিপ দেওয়া হয় এবং একই সাথে ইঞ্জিনিয়ারিং এ গ্রাজুয়েশন কমপ্লিটের সার্টিফিকেট দেওয়া হয়, যার মাধ্যমে আপনি নিজেকে একজন “প্রকৌশলী” হিসেবে গড়ে তোলার সুযোগ পাবেন। এএমআইই(সেকশন-এ এবং বি) পাশকে “বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং এর সমমান” হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে এবং বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং যোগ্যতার সকল সরকারী চাকুরীসমূহে এএমআইই পাশ করা প্রকৌশলী আবেদনের সুযোগ পেয়ে থাকেন। ৪ টি বিষয়ে এএমআইই পড়ার সুযোগ রয়েছে । ইলেক্ট্রিক্যাল, সিভিল, মেকানিক্যাল এবং কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং। *** আপনি যে বিষয়েই পড়াশুনা করেন না কেন, আপনাকে সেকশন-এ (৮০০ মার্কস) এবং সেকশন বি-তে (৮০০ মার্কস) সবমিলিয়ে ১৬ টি কোর্সে সর্বমোট ১৬০০ মার্কসের পরীক্ষায় পাশ করতে হবে, তবে এ সেকশনের ৮ টি সাবজেক্ট পাশ না করা পর্যন্ত, বি সেকশনের কোন কোর্সে অংশ গ্রহন করা যাবেনা ***। এএমআইই পরীক্ষায় অংশগ্রহনের জন্য সর্বপ্রথম আপনাকে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি)-র ঢাকা, রাজশাহী, খুলনা কিংবা চট্টগ্রাম শাখার যেকোনো একটি শাখায় ভর্তি হতে হবে। ভর্তির একবছর পর সর্বপ্রথম পরীক্ষায় অংশগ্রহন করতে পারবেন। প্রথমবার পরীক্ষা দেওয়ার পর, প্রতি ৬ মাস পরপরই পরীক্ষায় অংশগ্রহন করতে পারবেন। এএমআইই পরীক্ষাসমূহ বাংলাদেশের ৪টি সরকারী প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (BUET/RUET/CUET/KUET) এপ্রিল এবং অক্টোবরে অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। কোন পরীক্ষায় অংশগ্রহন বাদ না গেলে এবং কোন পরীক্ষায় ফেল না করলে দুই বছরেই এএমআইই পাশ করে “প্রকৌশলী” হওয়া সম্ভব।

AMIE তে ভর্তি ইনফো
** আইইবি’র সকল কেন্দ্রে বছরে ২ বার ভর্তি করা হয় । ভর্তির সময়- ফেব্রুয়ারি এবং আগস্ট মাস ।

** বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের ৪ বছর মেয়াদী Diploma in Engineeringপাশকৃতরা ভর্তি হতে পারবে । সেই ক্ষেত্রে CGPA-3.00 (in the scale of 4.00) থাকতে হবে । অথবা বাংলাদেশ মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড থেকে বিজ্ঞান বিভাগে H.S.C পাশকৃতরা এই কোর্সে ভর্তি হতে পারবে । এ ক্ষেত্রে Physics, Chemistry, Mathematics, English- এ GPA-3.00 সহ GPA- 4.00 (in the scale of 5.00) থাকতে হবে এবং H.S.C পাশ এর পর ২ বছরের কারিগরি অভিজ্ঞতার সার্টিফিকেট থাকতে হবে ।

** ভর্তির সময় ২ কপি ছবি, SSC সার্টিফিকেটের সত্যায়িত কপি , ডিপ্লোমা বা HSC পাশের Certificate ও Grade Sheet / Transcript– এর সত্যায়িত কপি আবেদনপত্রের সাথে জমা দিতে হয় ।

** অফিস সময়সূচী- শনিবার থেকে বৃহস্পতিবার দুপুর ২.০০- রাত ৯.০০ টা (শুক্রবার ও সরকারি ছুটির দিন বন্ধ
থাকবে)।

** IEB Council প্রয়োজন মনে করলে , উপরোক্ত নিয়মাবলী পরিবর্তন / পরিবর্ধন করতে পারবেন । যেহেতু এই নিয়ম গুলো পরিবর্তন হতে পারে, তাই ভর্তির সময় IEB এর ওয়েবসাইট থেকে বিস্তারিত জেনে নিবেন।

ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ
সদর দফতর: রমনা, ঢাকা-১০০০

পরীক্ষা, ভর্তি, ফরম ফিলাপ ও অন্যান্য নিয়ম কানুন জানতে http://www.iebbd.org/ এই ওয়েব সাইটে ভিজিট করুন।

তবে বর্তমানে এএমআইই(সেকশন-এ এবং বি) এর সিলেবাস কিছু পরিবর্তন হয়েছেঃ
** আগস্ট ২০১৫ টার্মের ভর্তি থেকে সেকশন ’এ’ তে ১১ টি বিষয় এবং সেকশন ’বি’ তে ১১ টি বিষয় এই মোট ২২ টি বিষয়ের উপর পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে ।
** ফেব্রুয়ারি ২০১৫ টার্মে বা তার পূর্বে যারা ভর্তি হয়েছে তারা সেকশন ’এ’ তে- ৮ টি এবং সেকশন ’বি’ তে ৮ টি
বিষয় মোট ১৬ টি বিষয়ের উপর পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে ।

AMIE পাশ করার পর উচ্চ শিক্ষা-
এএমআইই ডিগ্রী, ব্যাচেলর এর সমমান । বাংলাদেশে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় এ ইলেক্ট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং এর শিক্ষার্থীরা ইঞ্জিনিয়ারিং এ মাস্টার্স করার সুযোগ পেয়ে থাকে । এছাড়া ইঞ্জিনিয়ারিং এ মাস্টার্স করার সুযোগ তেমন নেই বললেই চলে । সকল বিশ্ববিদ্যালয়ে এমবিএ করতে পারবেন । (ঢাবি, রাবি, খুবি, চবি, ইবি, জাবি, Jagannath University, BUP, NSU, IU, BracU, EWU সহ সকল বিশ্ববিদ্যালয়) । প্রায় সকল বিশ্ববিদ্যালয়ে আইটি তে পোস্ট গ্র্যাজুয়েট ডিপ্লোমা (পিজিডি) করতে পারবেন । (বুয়েট এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বাদে সকল বিশ্ববিদ্যালয়) । তবে সবার মনে রাখা দরকার রেজাল্ট ভাল থাকা, উচ্চশিক্ষার প্রথম শর্ত ।

আরো দেখুন-

Share this post for your friend (সবার জন্য এই লিংকটি শেয়ার করুন)

PinIt
শুধু পাঠক হিসাবে নয় আমরা আপনাকে চাই একজন শিক্ষক ও লেখক হিসাবে। প্রয়োজনীয় ছবি সহ আমাদেরকে লিখুন ইমেইলে- etipsbdinfo@gmail.com