Battery ও Battery Connection নিয়ে কিছু টিপস

BAT

Battery Connection

সেল ও ব্যাটারী
সেল এমন একটি একক ইউনিট যা রাসায়নিক শক্তিকে বৈদ্যুতিক শক্তিতে রুপান্তর করে ডিসি ভোল্টেজ উৎপাদন করে। কারেন্ট/ভোল্টেজ এর পরিমান পরিবর্তনের জন্য কতগুলি সেল (সিরিজ/প্যারালেলে) একত্রিত করা হয়, তখন এরূপ দলবদ্ধ সেলগুলোকে একত্রে ব্যাটারী বলে।

Battery Charger
ব্যাটারী চার্জার একটি ডিসি পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট ছাড়া আর কিছুই নয়। তবে এটা সাধারণত ব্যাটারী ভোল্টেজ থেকে একটু বেশি ভোল্টেজের হয়ে থাকে। এটির পজিটিভ টার্মিনাল ব্যাটারীর পজিটিভ লিডে, নেগেটিভ টার্মিনাল ব্যাটারীর নেগেটিভ লিডে সংযুক্ত থাকে।

Float Charging & Boost Charging
আপনারা হয়তো দেখেছেন কোন ভাল ব্যাটারী চার্জারে Float Charging & Boost Charging একটি সুইস থাকে । ভালো মানের চার্জারে বিশেষ করে ইন্ডাস্ট্রিতে যেসব ব্যাটারী চার্জার থাকে সেগুলোতে থাকে।
যেখানে ব্যাটারী সাধারণত কম ডিসচার্জ হয় (রেয়ারলি ডিসচার্জ হয়) সবসময় ব্যাটারী চার্জারের সাথে কানেক্ট থাকে সেখানে Float Charging অপশনে রেখে ব্যাটারী চার্জে রাখা হয়। এ সময় কম কারেন্টে ব্যাটারি চার্জ হতে থাকে, লোড ও ব্যাটারী চার্জারের প্যারালেলে থাকে। নরমাল কন্ডিশনে চার্জার থেকেই লোডে ডিসি ভোল্টেজ পায়, যদি ব্যাটারী চার্জারে ইনপুট ফেইল করে তখন ব্যাটারী থেকে ডিসি পাওয়ার লোডে যায়।এ অবস্থায় ব্যাটারী ওভারচার্জিং হওয়া থেকে রক্ষা পায়।
একটি ব্যাটারী ফুল ডিসচার্জ হলে, অল্প সময়ে ব্যাটারী চার্জ করার প্রয়োজন হলে হাই কারেন্টে যে চার্জিং করা হয় সেটাই Boost Charging (বলতে পারেন ফোর্স চার্জিং পদ্ধতি)। সাধারণত অনেকদিন ব্যাটারী চার্জে না থাকলে প্রথমে Boost Charging এ ব্যাটারী চার্জ করা হয়, ফুল চার্জ হয়ে গেলে আবার সুইস Float Charging এ রাখা হয়। সবসময় Boost Charging এ রাখলে ব্যাটারী ওভারচার্জিং হতে পারে।

কিছু ইনফো-টিপসঃ
* ব্যাটারীর ক্ষমতা এম্পিয়ার-আওয়ার (AH) এ প্রকাশ করা হয়।
* ব্যাটারীর ভিতরে যে তরল পদার্থ ব্যবহার করা হয়, তাকে ইলেক্ট্রোলাইট বলে। এটি পানি (ডি-মিনারালাইজড ওয়াটার) ও সালফিউরিক এসিড (এটির সংকেত H2SO4) এর মিশ্রণ।
* ব্যাটারী ফুল চার্জ অবস্থায় ইলেক্ট্রোলাইট এর আপেক্ষিক গুরুত্ব 1.3 হয়।
* ইলেক্ট্রোলাইটের আপেক্ষিক গুরুত্ব মাপার যন্ত্রের নাম হাইড্রোমিটার ।

hydrometer

hydrometer


* আমরা বাসা-বাড়িতে যেসব ড্রাইসেল (সাধারণত ব্যাটারী বলি) ব্যবহার করি (দেয়াল ঘড়ি, রিমুট ইত্যাদিতে) সেগুলো 1.5 ভোল্টের হয়।
* লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারীও আছে যেগুলো সাধারণত মোবাইলে/পোর্টেবল ডিভাইসে ব্যবহার করা হয়। তবে এই ব্যাটারীগুলো সাধারনত 3.7V ভোল্টের হয়।
* কোন ব্যাটারী ৫০% এর বেশী ডিসচার্জ করা ঠিক নয় । এতে ব্যাটারীর আয়ু কমে যায়।

“Diodes are used to rectify AC to pulsated DC”

Share this post for your friend (সবার জন্য এই লিংকটি শেয়ার করুন)

PinIt
শুধু পাঠক হিসাবে নয় আমরা আপনাকে চাই একজন শিক্ষক ও লেখক হিসাবে। প্রয়োজনীয় ছবি সহ আমাদেরকে লিখুন ইমেইলে- etipsbdinfo@gmail.com