মাছে ও দুধে ফরমালিন সনাক্তকরণ

আপনারা সকলেই জানেন, ই টিপস সবসময় ভাল কিছু টিপস সংগ্রহ করে এবং তা সবার কল্যাণে শেয়ার করে। যদিও আমরা একেবারেই নতুন, তারপরও ভাল কিছু উপহার দেয়ার চেস্টা করা হয়। আজ মাছে ও দুধে ফরমালিন সনাক্তকরণ নিয়ে আলোচনা করা হচ্ছে । নিচের ইমেজটি একটি পত্রিকার বিজ্ঞাপন থেকে সংগ্রহ করা-

formalin-mukto-tips

উপরের সংগ্রহ করা ইমেজের লেখা কেউ বুঝতে না পারলে নিচে দেখুন। হুবুহ সে লেখাটি দেয়া হল-

মাছে ফরমালিন সনাক্তকরণ
মাছে ফরমালিন সনাক্তকরণ কিট বক্সের ভিতরে পরীক্ষার জন্য তিনটি দ্রবন, একটি ড্রপার, তিনটি গ্লাস টিউব এবং একটি ব্যবহারবিধি সরবরাহ করা হয়েছে। ফরমালিন পরীক্ষার জন্য মাছটিকে অল্প পানি দিয়ে ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে । ড্রপারের সাহায্যে ২ ড্রপার (২.৫মিলি) মাছ ধোয়া পানি একটি টিউবে নিয়ে পর্যায়ক্রমে ৩০ সেকেন্ড অন্তর দ্রবন-১, দ্রবন-২ এবং দ্রবন-৩ থেকে ১৫ ফোঁটা করে দিতে হবে। তৃতীয় দ্রবণ দেয়ার পরে যদি টিউবের পানির রং পরিবর্তিত হয়ে গোলাপি অথবা লাল রং হয় তাহলে বুঝতে হবে মাছে ফরমালিন আছে। আর যদি রং অপরিবর্তিত থাকে তাহলে বুঝতে হবে মাছে ফরমালিন নেই । একটি কিট বক্স দ্বারা প্রায় ৩০টি নমুনা পরিক্ষা করা যায় এবং নির্ণয় মাত্রা ৫ পিপিএম।

মাছে ফরমালিন সনাক্তকরণ কিটটির মূল্য ২৫০ টাকা, প্রাপ্তিস্থানঃ পরিচালকের দপ্তর, আইএফএসটি, বিসিএসআইআর, (সাইন্স ল্যাবরেটরী), ঢাকা ।

দুধে ফরমালিন সনাক্তকরণ
দুধে ফরমালিন সনাক্তকরণ দ্রবণ বক্সের ভিতরে পরীক্ষার জন্য একটি দ্রবন ও একটি চামচ এবং বক্সের গায়ে ব্যবহারবিধি সরবরাহ করা হয়েছে। ফরমালিন পরীক্ষার জন্য এক চামচ দুধ নিয়ে ৪-৫ ফোঁটা দ্রবণ নিয়ে কিছুক্ষণ (৪-৫) মিনিট অপেক্ষার পর যদি দুধের রং পরিবর্তিত হয়ে বক্সের গায়ের চিহ্নিত বেগুনী রং ধারন করে তাহলে বুঝতে হবে দুধে ফরমালিন আছে। আর যদি রং বেগুনী না হয় তাহলে বুঝতে হবে দুধে ফরমালিন নেই । একটি কিট বক্স দ্বারা প্রায় ৫০টি নমুনা পরিক্ষা করা যায় এবং নির্ণয় মাত্রা ৫ পিপিএম।

দুধে ফরমালিন সনাক্তকরণ কিটটির মূল্য ১০০ টাকা, প্রাপ্তিস্থানঃ পরিচালকের দপ্তর, আইএফএসটি, বিসিএসআইআর, (সাইন্স ল্যাবরেটরী), ঢাকা ।
পিপিএম (ppm)- parts-per-million.

বিসিএসআইআর এর ওয়েবসাইট দেখুন

উপরের কিট দুটি কেনা-বেচার সাথে ই টিপস বিডির কোন সম্পৃক্ততা নেই। নিজ দায়িত্বে কিনবেন। এই পোস্টটি আজ (১১-০১-২০১৬) তারিখে পাবলিশ করা হল। হয়ত আজকের পরে এই কিট টির দাম পরিবর্তন হতে পারে। তাই যোগাযোগ করে কিনে নিবেন। ভেজালের ভিড়ে দুধ ও মাছ যেন নিরাপদ খেতে পারি তার জন্য এই কিট সংগ্রহ করা উচিত সবার। এই উদ্ভাবনের জন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে ই টিপসের পক্ষ থেকে অভিনন্দন। আমরা যেন নিরাপদ খাবার খেতে পারি তার জন্য একটি বৃহত্তর সামাজিক আন্দোলোন গড়ে উঠুক। সুস্থ থাকুন, ভালো থাকুন -ই টিপস বিডি।

জনসচেতনতার জন্য এই পোস্টটি সবাই শেয়ার করবেন।

Share this post for your friend (সবার জন্য এই লিংকটি শেয়ার করুন)

PinIt
শুধু পাঠক হিসাবে নয় আমরা আপনাকে চাই একজন শিক্ষক ও লেখক হিসাবে। প্রয়োজনীয় ছবি সহ আমাদেরকে লিখুন ইমেইলে- etipsbdinfo@gmail.com