আমার মনে পড়া দুরন্ত সব স্মৃতিগুলো-১

আমি ক্লাস ফাইভে তখন। বক্কর ভাই বাসার পিছন দেয়ালের এক কোনে ভীমরুলের বাসা। এত সুন্দর হাড়ির ( ভীমরুলের বাসাটা ) ভিতরে কি দেখতে মাথায় ভুত ঢুকে গেছে।

ভীমরুলের বাসা

ভীমরুলের বাসা


বেশ কিছুদিন আমার টারগেট কবে ভাঙবো হাড়িটা। বেশ কয়েকদিন গিয়ে সুবিধা না পেয়ে ব্যর্থ হয়েছে আমার অপারেশন। সময়টা বেছে নিলাম গ্রীষ্মের গড়া দুপুর (দুপুর ২:৩০ দিক) । হাড়ি ভেঙ্গে কোন দিক দিয়ে পালাবো একটু ভালো করে চেক করে নিলাম। তারপর ১-২-৩ আমার হাতের ঢিল নিশানা মিস হলনা । সুন্দর হাড়িটা ভেঙ্গে চুরমার…। পালানোটা ভুলে গেছিলাম (ভিতরটা একটু দেখব বলে)। আর ফলাফল আমার মাথায় পটাশ করে কামড়, কলা গাছের নিছে দিয়ে দৌড়ে গিয়ে দেখি একটা মাথায় কামড়ে বসে আছে। ততক্ষনে বাসার লোকজন এর চিল্লা চিল্লি শুরু। বুঝতে আর বাকি নেই, ঘটনা কোথায় গিয়েছে। যাইহোক আমি ধানক্ষেত দিয়ে দৌড়ে কারো মেশিন ঘরে গিয়ে আশ্রয় নিলাম সন্ধ্যা পর্জন্ত। ততক্ষনে বাসায় ঝড়ো নালিশ, আমায় যে আজ হবে বুঝা শেষ। সন্ধ্যায় বাসার আসে পাশে আসতেই ছড়ানো নিউজ কিছুটা কানে ঢুকল। ব্রেকিং নিউজ- “একটি দুষ্ট ছেলে (আমি) ভীমরুলের বাসা ভেঙ্গে ফেলেছে ফলশ্রুতিতে একটি বাড়ির শিশু, একজন মহিলা এবং বাসার একটি গরুর বাছুর আহত, দুষ্ট ছেলেটিকে আর খুজে পাওয়া যাচ্ছেনা “। মায়ের হাতে মার খাওয়ার ভয়ে বাসায় ঢুকার আর সাহস হলনা। পাশের বাড়ির দোতালার ছাদে গিয়ে আমাদের বাসার দিকে পা ঝুলিয়ে বসে থাকলাম। মা কি কি বলে একটু একটু শুনতে পাচ্ছি। রাত ৮.০০, এদিকে বাসায় মা সহ সবাই আমাকে খুজে বেড়াচ্ছে। আমার খেলার সকল লোকেশন দেখা শেষ তাদের। এবার আমাকে নিয়েই সবার টেনশন, আমার টেনশন বাসায় কিভাবে যাব। দুই ভীমরুলের কামড়ে ততক্ষনে গায়ে জর এসেছে। বাসার দিকে চোখ রেখেই বসে আছি কি করব ভেবে পাচ্ছিনা…। হঠাৎ আমার পিছন থেকে খপ করে আমাকে ধরা হল। আমি ভয়ে চোখ বড় করে তাকিয়ে দেখি আমার মা। মা র দিকে তাকিয়ে রইলাম কিছুক্ষন। তারপর আমাকে কিছু না বলে বাসায় নিয়ে আসলো। বল্ল হাত মুখ ধুয়ে পড়তে বস। আমি ত অবাক, আমার শাস্তি কই??? মাথা ব্যাথা, আমার জর ভুলে গেছি। মা বলল অনেক ভয় পেয়েছিস, জ্বরও আসছে, যদি ছাদ থেকে পড়ে যাই সেজন্য চুপ করে ধরেছি। অরা যতই অভিযোগ করুক তারপর কোন কিছু বলছিনা এমনিতেই অনেক ভয় পাইছো। এরকম দুস্টামি করতে না করলো ভবিষ্যতে। এটাই আমার মা, আমি কিছু না বললেও সব বুঝে নিয়েছে। আমিও কথা দিলাম এরকম ভুল আর করবনা।

ভাল লাগলে সবার মাঝে শেয়ার করুন।
ফেসবুকে কমেন্টস করতে, আপনার ফেসবুকে লগইন থাকতে হবে-

মাহিনের ব্লগ। লিখেছেন- মাহিন, ই টিপস বিডি।

এই পোস্টটি শেয়ার করুন